BBC navigation

মার্কিন দূতাবাস কর্মীদের সরিয়ে নেয়ায় ইয়েমেনের সমালোচনা

সর্বশেষ আপডেট বুধবার, 7 অগাষ্ট, 2013 00:07 GMT 06:07 বাংলাদেশ সময়
british embassy yemen

ইয়েমেনে অবস্থিত ব্রিটিশ দূতাবাস।

ইয়েমেনে যুক্তরাষ্ট্র এবং মিত্ররাষ্ট্রগুলোর দূতাবাস থেকে কর্মচারীদের সরিয়ে নেয়ার সমালোচনা করেছে ইয়েমেন সরকার।

দেশটি বলছে, এর ফলে জঙ্গিবাদীদের স্বার্থই রক্ষা হবে এবং তারা বিদেশী দূতাবাসগুলোর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সবধরনের পদক্ষেপই নিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ভাষায়, একটি উচ্চমাত্রার নিরাপত্তা হুমকির কারণে তারা তাদের দূতাবাস থেকে অত্যাবশ্যকীয় নয় এমন সব কর্মচারীদের ইয়েমেন থেকে সরিয়ে নিচ্ছে, এবং মার্কিন নাগরিকদেরও দেশত্যাগের আহ্বান জানিয়েছে।

ব্রিটেনও বলেছে তারা অস্থায়ীভাবে তাদের দূতাবাসের কর্মচারীদের সরিয়ে নিয়েছে। বিস্তারিত জানাচ্ছেন আহারার হোসেন।

ইয়েমেনে মার্কিন একটি ড্রোন বিমানের হামলায় চারজন সন্দেহভাজন আল-কায়েদা সদস্য নিহত হবার পরই এই নিরাপত্তা হুমকির বিষয়টি জানায় যুক্তরাষ্ট্র।

এই চারজন আল-কায়েদা সদস্যদের মধ্যে একজন উচ্চপর্যায়ের নেতাও রয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্র বলছে, একটি নির্দিষ্ট এবং আসন্ন হুমকির কারণেই তারা তাদের নাগরিকদের সরিয়ে নেয়ার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র জেন সাকি বলেছেন, তারা দূতাবাসের সকল কর্মচারীকেই সরিয়ে নিচ্ছেন না। মধ্যপ্রাচ্য এবং আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে এখনো ১৯ টি মার্কিন দূতাবাস বন্ধ রয়েছে।

জানা যাচ্ছে, মার্কিন গোয়েন্দারা আল-কায়েদার দুজন উচ্চপর্যায়ের নেতার মধ্যকার কথোপকথন থেকে জানতে পেরেছেন, সংগঠনটির মার্কিন লক্ষ্যবস্তুর ওপর হামলার একটি চক্রান্ত চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে।

বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে যে, এই দুজনের একজন আল-কায়েদা প্রধান আইমান আল জাওয়াহিরি এবং অপরজন ইয়েমেন অংশের নেতা নাসার আল উহেসি ।

এই সিদ্ধান্তের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সাথে ইয়েমেনের সম্পর্ককে খাটো করে দেখা হয়েছে বলে মনে করছে ইয়েমেন সরকার।

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻