ডঃ ইউনুসের সঙ্গে দেখা করেছেন বিএনপির নেতারা

  • ২৭ জুন ২০১৩
yunus bnp meet
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগির ও সাবিউদ্দিন আহমেদ প্রায় পৌনে এক ঘন্টা বৈঠক করেছেন ড: ইউনুসের সাথে।

বাংলাদেশে প্রধান বিরোধী দল বিএনপির একটি প্রতিনিধিদল ড: মুহাম্মদ ইউনুসের সাথে দেখা করে গ্রামীণ ব্যাংকের পক্ষে তাদের অবস্থান তুলে ধরেছে।

দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগিরসহ দু’জন নেতা আজ বৃহস্পতিবার সকালে ড: ইউনুসের সাথে বৈঠক করেছেন।

মি: আলমগির বলেছেন, ড: ইউনুসকে নানাভাবে হয়রানি করার পাশাপাশি সরকারের একটি কমিশন এখন গ্রামীণ ব্যাংককে ভাঙ্গার সুপারিশ করেছে। সেই প্রেক্ষাপটেই বিএনপি ড: ইউনুস এবং গ্রামীণ ব্যাংকের পাশে থাকার কথা জানিয়েছেন।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অনেকেই বলেছেন, ড: ইউনুস এবং গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতি দেশে এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে যে সমর্থন আছে, বিএনপি রাজনৈতিক কৌশল থেকে সেই সমর্থনকে কাজে লাগাতে চাইছে।

ড: মুহাম্মদ ইউনুস এবং গ্রামীণ ব্যাংককে ঘিরে সরকারের ভূমিকা নিয়ে যখন নতুন করে সমালেচনা উঠেছে, তখন প্রধান বিরোধী দল বিএনপি বিষয়টাকে রাজনৈতিক অঙ্গনে একটা ইস্যু হিসেবে সামনে আনতে চাইছে বলে দলটির নেতাদের অনেকেই বলছেন।

সর্বশেষ , সরকারের একটি কমিশন গ্রামীণ ব্যাংকের কাঠামো পাল্টিয়ে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিগুলোর আদলে নেওয়ার সুপারিশ করেছে। এর প্রতিবাদ এসেছে ড: ইউনুস এবং গ্রামীণ ব্যাংকের পক্ষ থেকেও।

এমন পটভূমিতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগির এবং দলটির আরেকজন নেতা সাবিউদ্দিন আহমেদ প্রায় পৌনে এক ঘন্টা সময় ধরে বৈঠক করেছেন ড: ইউনুসের সাথে, যদিও এই বৈঠককে সৌজন্য সাক্ষাৎ হিসেবে বর্ণনা করেছেন মি: আলমগির । একইসাথে তিনি বলেছেন, ড: ইউনুস এবং গ্রামীণ ব্যাংকের পক্ষে তাদের অবস্থানের কথা তারা জানিয়েছেন।

তিনি বলছিলেন, ‘বর্তমান সরকার ড: ইউনুসের উপর যেভাবে চড়াও হয়েছে এবং তাঁকে যেভাবে নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে, তার বিরুদ্ধে আমরা বরাবরই সোচ্চার ছিলাম। অতি সম্প্রতি গ্রামীণ ব্যাংককে ১৯ভাগে ভাগ করার যে সুপারিশ সরকারের একটি কমিশন থেকে এসেছে, সে ব্যাপারে আপত্তি এবং উদ্বেগের কথা আমরা তুলে ধরেছি এবং এই বিষয়ে আমরা তাঁর সঙ্গে আছি, সেটাও আমরা তাঁকে জানিয়েছি।’

বছর দুয়েক আগে যখন ড: ইউনুসকে গ্রামীণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পদ থেকে সরে যেতে হয়েছিল। তখনও সরকারের অবস্থানের সমালোচনা করেছিল বিএনপি।

তবে সে দফায় বিএনপি তাদের কথা তুলে ধরেছিল বক্তব্য বিবৃতির মাধ্যমে। এখন বিএনপির উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদল ড: ইউনুসের সাথে বৈঠক করে তাদের সমর্থন জানিয়েছে।

ইংরেজী দৈনিক দ্য নিউজ টুডে পত্রিকার সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, গ্রামীণ ব্যাংক ইস্যু নিয়ে বিএনপি একদিকে বিরোধী দল হিসেবে তাদের দায়িত্ব পালন করছে। একইসাথে বিষয়টাকে নিজেদের পক্ষে নেওয়ার রাজনৈতিক কৌশল নিয়েও দলটি এগুচ্ছে বলে তাঁর মনে হচ্ছে।

‘ড: ইউনুস বাংলাদেশের একজন গর্বিত মানুষ। ফলে তাঁকে অপমানিত বা হেনস্থা করা হলে দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষ মানসিকভাবে আহত হয়। সেখানে বিএনপি রাজনৈতিক কৌশল হিসেবে পাশে দাঁড়িয়ে আহত মানুষকে সমর্থন নিজেদের পক্ষে নেওয়ার চেষ্টা করবে। এটাই স্বাভাবিক।’

সাংবাদিক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ আরও বলেছেন, ‘কৌশলগতভাবে অবশ্যই বিএনপি রাজনৈতিক সুবিধা নিতে ড: ইউনুসের পাশে দাঁড়াবে। এটা তাদের রাজনৈতিক কৌশল।’

তবে বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগির গ্রামীণ ব্যাংকের পক্ষে তাদের অবস্থানকে রাজনৈতিক কৌশল হিসেবে দেখতে রাজি নন। তিনি বলেছেন, ড: ইউনুসের প্রতি ব্যক্তিগত বিদ্বেষ থেকে সরকার অবস্থান নিচ্ছে। সেটা দেশের জন্য ক্ষতিকর হচ্ছে। সেজন্য বিষয়টাতে বিএনপি তাদের অবস্থান তুলে ধরছে।

ড: ইউনুসের পক্ষ থেকে কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।