BBC navigation

বাংলাদেশে সামনের মাসে পদ্মা সেতুর দরপত্র আহ্বান

সর্বশেষ আপডেট বৃহষ্পতিবার, 23 মে, 2013 15:19 GMT 21:19 বাংলাদেশ সময়

বাংলাদেশে পদ্মা সেতুর মূল কাঠামো নির্মাণের জন্য সামনের মাসেই দরপত্র আহ্বান করা হবে। দেশটির যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বৃহস্পতিবার একথা জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য বহুল আলোচিত এই পদ্মা সেতু প্রকল্পে দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ এনে বিশ্বব্যাংক এই প্রকল্প থেকে নিজেদের প্রত্যাহার করে নিয়েছিল। এরপর বাংলাদেশ সরকার নিজস্ব উদ্যোগেই এই প্রকল্প বাস্তবায়নের ঘোষণা দেয়।

যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, নিউজিল্যান্ডভিত্তিক একটি পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ইতোমধ্যেই পদ্মা সেতুর নকশা এবং অন্যান্য কাজ হালানাগাদ করেছে। ফলে জুন মাসের শেষ সপ্তাহেই সেতু মূল কাঠামো নির্মাণের দরপত্র আহবান করা হচ্ছে।

কিন্তু দেশের বৃহত্তম এই নির্মাণ প্রকল্পের কাজ কতোটা স্বচ্ছতার সঙ্গে করা হচ্ছে তা নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তুলেছেন।

দুর্নীতি বিরোধী সংস্থা টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান বলেন, বিশ্বব্যাংক বা দাতাগোষ্ঠী সম্পৃক্ত থাকলে অনিয়ম বা দুর্নীতি মনিটর করার একটা ব্যবস্থা থাকতো। সেখানে এখন সরকারকেই নিরপেক্ষ মনিটরিং টিম গঠন করা উচিত বলে তিনি মনে করেন।

"এত বড় কাজের স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে নিরপেক্ষ তদারকি প্রয়োজন। নিরপেক্ষ বিশেষজ্ঞ নিয়ে একটা পর্যবেক্ষণ কমিটি করা উচিত"

ইফতেখারুজ্জামান, টিআইবি

তিনি বলছিলেন, ‘এত বড় কাজের স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে নিরপেক্ষ তদারকি প্রয়োজন। নিরপেক্ষ বিশেষজ্ঞ নিয়ে একটা পর্যবেক্ষণ কমিটি করা উচিত।’

নির্বাচনী অঙ্গীকার

যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের অবশ্য দাবি করেছেন, পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজের সকল ক্ষেত্রেই তারা স্বচ্ছতা নিশ্চিত করবেন। তদারকির জন্য একটা বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করার কথাও তিনি উল্লেখ করেন।

পদ্মা সেতু নির্মাণ আওয়ামী লীগের অন্যতম নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি ছিল। টিআইবির ইফতেখারুজ্জামান বলেন, এখন নির্বাচন সামনে রেখে নিজস্ব অর্থায়নে শুধু ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হচ্ছে কিনা, সেটা নিয়েও তাদের সন্দেহ রয়েছে।

তিনি বলছিলেন, “কাজ শুরু করার জন্য সরকারের কতটা অঙ্গীকার আছে, এই প্রকল্পে যে পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা এবং কারিগরি বিশেষজ্ঞ দরকার,তার কতটা সরকারের আছে এগুলো নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে। এপর্যন্ত আমার ধারণা, এটাকে একটা রাজনৈতিক ইস্যূ হিসেবেই দেখা হচ্ছে। একটা পর্যায়ে হয়তো বিষয়টা শুধু ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন পর্যন্তই থেকে যাবে।’

তবে এই বক্তব্যও মানতে রাজি নন যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলছিলেন, ‘পদ্মা সেতু নির্মাণে চার বছর সময় লেগে যাবে। সরকার যা করছে,তা পরবর্তী নির্বাচনের জন্য নয়। সরকার করছে আগামী প্রজন্মের জন্য।”

মন্ত্রী এটাও দাবি করেছেন যে ,তাদের সরকারের শেষ সময়ে কাজ শুরু করলেও প্রকল্পটি পুরোপুরি বাস্তবায়নের জন্য অর্থসহ সবদিক থেকেই ব্যবস্থা তারা রেখে যাবেন।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻