BBC navigation

বাংলাদেশে সোমবার জামায়াতের ডাকা হরতাল প্রত্যাখানের উদ্যোগ

সর্বশেষ আপডেট রবিবার, 17 ফেব্রুয়ারি, 2013 16:06 GMT 22:06 বাংলাদেশ সময়
jamaat call

সোমবার দেশব্যাপী সকাল সন্ধ্যা হরতাল কর্মসূচি দিয়েছে জামায়াতে ইসলামী

বাংলাদেশে ঢাকার শাহবাগে আন্দোলনরত বিক্ষোভকারীরা সোমবার জামায়াতে ইসলামীর ডাকা সকাল-সন্ধ্যা হরতালের কর্মসূচিকে প্রতিহত করার ঘোষণা দেবার পর দেশটির দোকান মালিক সমিতি এবং পরিবহন মালিক সমিতি এই ডাকের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করেছে।

গত শুক্রবার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় জেলা কক্সবাজারে পুলিশের সাথে জামায়াত কর্মীদের সংঘর্ষে তিন ব্যক্তি নিহত হওয়ার পর মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার আইন সংশোধন, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল বাতিল ও দলের শীর্ষ নেতাদের মুক্তির দাবিতে জামায়াতে ইসলামী এই হরতাল ডাকে।

পুলিশ বলছে এই হরতাল ঠেকাতে তারা প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিয়েছে।

এদিকে, সোমবারের দেশব্যাপী হরতালে স্কুল কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম এবং নির্ধারিত পরীক্ষাসমূহ বাতিল না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

"রোববার সিলেটে হরতাল ছিল, এর মধ্যেই চলমান এসএসসি পরীক্ষা সেখানে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবারও সারা দেশে একই উদাহরণ অনুসরণ করা হবে।"

নুরুল ইসলাম নাহিদ, শিক্ষামন্ত্রী

মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বিবিসি বাংলাকে বলেছেন, ''রোববার সিলেটে হরতাল ছিল, এর মধ্যেই চলমান এসএসসি পরীক্ষা সেখানে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবারও সারা দেশে একই উদাহরণ অনুসরণ করা হবে। ''

শুক্রবার শাহবাগে আন্দোলনরত বিক্ষোভকারীরা জামায়াতে ইসলামীর ডাকা এই হরতাল প্রতিরোধের ঘোষণা দেয়। তাদের সাথে সংহতি জানিয়ে বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠন সোমবার হরতাল পালন না করার সিদ্ধান্ত নিয়ে পুলিশের কাছে নিরাপত্তা চেয়েছে।

ঢাকায় রোববার রাত থেকে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বা বিজিবির সদস্যরাও আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় রাস্তায় থাকবে বলে বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন বাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদ।

bgb patrol

বিজিবি সদস্যরা রোববার রাত থেকেই রাস্তায় টহলে নেমেছেন

বাংলাদেশে একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে গত ৫ই ফেব্রুয়ারি রাজধানী ঢাকার শাহবাগ মোড়ে ব্লগার ও অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট নেটওয়ার্কের ডাকে যে আন্দোলনের শুরু হয়, গত শুক্রবার সেখান থেকেই প্রতিরোধের ঘোষণা দেওয়া হয়।

কক্সবাজারে জামায়াতে ইসলামীর নেতা কর্মীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষের পর তিন ব্যক্তির মৃত্যুর পর দলটি নিহতের সংখ্যা চার বলে দাবি করে এবং বিবৃতি দিয়ে সারা দেশে সকাল সন্ধ্যা হরতালের ডাক দেয়। পাশাপাশি কক্সবাজারেও ৪৮ ঘন্টার হরতালের ডাক দেয় তারা।

কিন্তু শাহবাগের আন্দোলনকারীরা কেন আর কীভাবে এই হরতাল প্রতিরোধের কথা ভাবছেন ? শাহবাগের আন্দোলন আয়োজকদের একজন মারুফ রসুল বিবিসি বাংলাকে বলেছেন, ''আমরা আমাদের আন্দোলনের শুরু থেকেই অহিংস পন্থা অবলম্বন করেছি। জ্বালাও পোড়াও আমাদের নীতি নয়। আমরা চেতনা দিয়ে, মননের বিকাশ দিয়ে হিংস্র সাম্প্রদায়িক শক্তিকে প্রতিহত করার কথা বলছি। পুলিশ বাহিনীর ওপর তাদের হামলা আপনারা দেখেছেন। আমরা বলছি সরকারের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আরো সতর্ক ও দ্ক্ষ করতে হবে।''

যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে শাহবাগের আন্দোলনকারীরা সোমবার কাল ব্যাজ ধারন এবং কাল পতাকা উত্তোলনের ঘোষণাও দিয়েছেন।

"সোমবার সারা দেশে সব দোকান খোলা রাখা হবে এবং সেজন্য আমরা আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তা চেয়েছি।"

আমির হোসেইন খান, দোকান মালিক সমিতির সভাপতি

সোমবারের হরতাল প্রত্যাখানের ঘোষণার সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ দোকান মালিক এবং বাংলাদেশ পরিবহন মালিক সমিতি। দোকান মালিক সমিতির সভাপতি আমির হোসেইন খান বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন, ''সোমবার সারা দেশে সব দোকান খোলা রাখা হবে এবং সেজন্য আমরা আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তা চেয়েছি।''

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েতউল্লাহ বিবিসি বাংলাকে জানান, সবধরনের যানবাহন আগামীকাল রাস্তায় নামানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সমিতির পক্ষ থেকে। চলতি পথে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার বিষয়টি দেখার জন্য প্রশসানের সহায়তাও চাওয়া হয়েছে তাদের পক্ষ থেকে।

কিন্তু জনসাধারনের নিরাপত্তা রক্ষায় পুলিশের কি প্রস্তুতি? ঢাকা মহানগর পুলিশের কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান বলছেন, ''পুলিশের পর্যাপ্ত প্রস্তুতি রয়েছে। কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার কোন আগাম তথ্য না থাকলেও যে কোন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশের সকল প্রস্তুতি রয়েছে।''

ওদিকে কক্সবাজার জামায়াতের ডাকা ৪৮ ঘন্টার হরতাল শেষ হয়েছে। জেলার পুলিশ সুপার আজাদ মিয়া জানান জনজীবন একেবারেই স্বাভাবিক থাকায় হরতালের কোন চিহ্ন গত দুদিনে সেখানে দেখা যায়নি।

তাছাড়া দুদিনে হরতাল আহ্বানকারীরাও রাস্তায় নামেনি বলে তিনি জানান।

জামায়াতের ছাত্র সংগঠন ছাত্র শিবির শনিবার সিলেটে পুলিশের সাথে সংঘর্ষের পর আজ রোববার সেখানে আধাবেলা হরতালের ডাক দিয়েছিল। হরতাল চলাকালে তারা মিছিল বের করে। কিছু স্থানে সড়ক অবরোধ ও পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনার খবর পাওয়া গেছে।

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻