BBC navigation

কেন এত লোক শাহবাগে আসছেন?

সর্বশেষ আপডেট বৃহষ্পতিবার, 14 ফেব্রুয়ারি, 2013 10:16 GMT 16:16 বাংলাদেশ সময়
shahbagh crowd

বাংলাদেশে ১৯৭১ সালের যুদ্ধাপরাধীদের শাস্তির দাবিতে টানা নয় দিন ধরে শাহবাগের মোড়ে চলছে প্রতিবাদকারীদের বিক্ষোভ। প্রতিদিনই সেখানে পালিত হচ্ছে নতুন নতুন কর্মসূচি।

শুরু থেকেই যারা শাহবাগে আছেন, প্রতিনিয়ত তাদের সাথে এসে যোগ দিচ্ছেন নতুন নতুন মানুষ। আজ পহেলা ফাল্গুন বলে বসন্ত ঋতুর প্রথম দিনে একটু ভিন্ন চেহারাও নিয়েছিল এই এলাকা। বসন্ত উৎসব আর এই আন্দোলনকে একসাথে মিলিয়ে দিতে চলছে প্রতিবাদী গান।

অনেকে গোল হয়ে বসে শ্লোগান দিচ্ছেন, কোন কোন দল আবার মাঝখানে জাতীয় পতাকা রেখে গান গাইছেন, বা বাদ্যের তালে তালে ঘুরে ঘুরে নাচছেন।

কোথাও বা চলছে কবিতা আবৃত্তি। এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে চলছে অভিনব এই প্রতিবাদ কর্মসূচি।

অনেকেই বললেন, যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবি না মানা পর্যন্ত তারা প্রতিদিনই আসবেন।

shahbagh

ঠিক কিভাবে এতো মানুষজনকে ধরে রাখতে সক্ষম হচ্ছে? শাহবাগে গিয়ে দেখা গেল, এখানে পাশাপাশি চলছে নানা দলের নানা রকম কর্মকান্ড।

কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ তরুণীরা অনেকেই গালে বাংলাদেশের পতাকা ও মানচিত্র আঁকিয়েছেন। কারো হাতে লেখা 'ফাঁসি চাই'।

কেউ কেউ এই পয়লা ফাল্গুনের দিনেই প্রথমবার শাহবাগে এসেছেন। অনেকে এসেছেন পুরো পরিবার সাথে নিয়ে।

মূলত অনলাইনকর্মীদের উদ্যোগে গড়ে ওঠা এই অবস্থান কর্মসূচিকে ঘিরে এখনো তুমুল উৎসাহে চলছে ইন্টারনেটে, ব্লগ সাইটগুলোতে বা ফেসবুকে প্রচারণা। একে সংশ্লিষ্টরা বলছেন 'যুদ্ধাপরাধীদের বিরুদ্ধে সাইবারযুদ্ধ'।

একজন বলছিলেন, 'এখানে নিজস্ব একটা ইন্টারনেট সার্ভিস গড়ে তুলেছি আমরা। ইসলামী ছাত্র শিবির যে প্রপাগান্ডা চালাচ্ছে যে এখানে কিছুই হচ্ছে না, তার শক্ত জবাব দেয়া হচ্ছে এখান থেকেই।'

shahbagh

'প্রতি মুহুর্তে এখান থেকে আপডেট খবর ছবি দেয়া হচ্ছে, সারা বাংলাদেশে যারা আন্দোলন করছেন তাদের সাথে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে।'

গণস্বাক্ষর সংগ্রহের জন্য ১৯৭১ বর্গফুটের সাদা চাদর বিছিয়ে দেয়া হয়েছে রাস্তার ওপর এক জায়গায়।

যারা সার্বক্ষণিকভাবে আছেন তাদের জন্য খাওয়া-দাওয়া, জরুরি চিকিৎসা - এসবের প্রয়োজনে অনেকেই স্বেচ্ছায় সাহায্য নিয়ে এগিয়ে এসেছেন।

কেউ দিচ্ছেন খাবার পানি, কেউ বা বিস্কুট, বা অন্য কোন খাবার।

আয়োজকদের একজন বলছিলেন, আমার জীবনে এরকম ঐতিহাসিক ঘটনা আমি দেখিনি। একমাত্র মুক্তিযুদ্ধের সময়ই এমন ঘটেছে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻