BBC navigation

ভারতে হাজার হাজার শিশু ধর্ষণের শিকার

সর্বশেষ আপডেট বৃহষ্পতিবার, 7 ফেব্রুয়ারি, 2013 15:43 GMT 21:43 বাংলাদেশ সময়
india_juvenile_rape

ভারতে ধর্ষণের শিকার এক শিশুর বাড়ি

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন হিউমান রাইটস ওয়াচ বলছে, ভারতে কয়েক হাজার শিশু প্রতিবছর ধর্ষণ এবং যৌন নিপীড়নের শিকার হচ্ছে৻ আর এই ধর্ষণ বা যৌন নিপীড়ন চালাচ্ছেন শিশুটির খুব পরিচিত মানুষরাই৻

যৌন নিপীড়নের পরে পুলিশের কাছে আবার এবং বিচারব্যবস্থার সামনেও তৃতীয়বারের মতো মানসিকভাবে হেনস্থা হতে হচ্ছে ওই শিশুদের৻ হিউমান রাইটস ওয়াচ বলছে, ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার বা প্রাদেশিক সরকারগুলো শিশুদের ওপরে যৌন নিপীড়ন রুখতে খুব সচেষ্ট নয়৻

মানবাধিকার সংগঠনটি বলছে, ভারতে শিশুদের ধর্ষণ আর যৌন নিপীড়নের সংখ্যা ভয়াবহ পর্যায়ে পৌঁছেছে৻ প্রতি বছর সদ্যোজাত শিশুসহ প্রায় সাত হাজার শিশু ভারতে ধর্ষিত হচ্ছে৻

পুলিশের কাছে অভিযোগ জমা পড়ার সংখ্যা এটা৻ হিউমান রাইটস ওয়াচ বলছে, আরও বহু ঘটনার অভিযোগই জমা পড়ে না৻

"যদি বা বাবা-মাকে শিশুরা ঘটনাটা বলতেও পারে, বাচ্চাদের কথা অনেকেই বিশ্বাস করতে চান না৻ "

মীনাক্ষি গাঙ্গুলি, হিউম্যান রাইটস ওয়াচ

বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে ওই সংস্থাটি বলছে, শিশুদের ওপরে যৌন নিপীড়ন চালাচ্ছেন এমন মানুষরা – যাঁদের ওপরে তারা খুবই ভরসা করে থাকে – যেমন পরিবারের লোকজন, স্কুলের শিক্ষক বা হোস্টেলে শিশুদের দেখভালের দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিরা৻

হিউমান রাইটস ওয়াচের মুখপাত্র মীনাক্ষি গাঙ্গুলি বিবিসি বাংলাকে বলছিলেন, “প্রথমত তো শিশুরা যৌন নিগ্রহের ব্যাপারটাই ঠিক বুঝে উঠতে পারে না৻ যদি বা বাবা-মাকে তারা ঘটনাটা বলতেও পারে, বাচ্চাদের কথা অনেকেই বিশ্বাস করতে চান না৻ কারণ খুব চেনা লোকজনরাই অত্যাচারটা করছেন৻ মায়েরা যখন ওই সব চেনা মানুষজনকে চেপে ধরছেন, তখন মায়েদের ওপরেও অত্যাচার চলছে – এরকম ঘটনাও দেখেছি আমরা৻”

উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের একটি ছোট মেয়ে নেহা – যার আসল নাম আমরা প্রকাশ করছি না – নিজের অভিজ্ঞতার কথা জানাতে গিয়ে বলছিল, “দুজন আমাকে চেপে ধরেছিল.. মুখ ঢাকা ছিল – জামাকাপড় ছিঁড়ে দিয়ে জবরদস্তি অত্যাচার করে তারা৻ কোনমতে একজনের মুখ দেখে চিনতে পেরেছিলাম৻ কিন্তু কেউই সে কথা বিশ্বাস করে নি৻ পুলিশ আমার পরিবারকে জিজ্ঞাসা করেছিল যে সত্যিই আমার ওপরে অত্যাচার হয়েছিল কী না, সেটা কি বাড়ীর লোকেরা পরিবারের লোকরা যাচাই করেছিল?”

"পুলিশের সচেতনতা বাড়ানোর জন্য অনেক প্রকল্পও নেওয়া হয়েছে৻ কিন্তু সেগুলো যে খুব একটা কাজে আসছে না। "

সুমন নালওয়া, পুলিশ কর্মকর্তা

হিউমান রাইটস ওয়াচের মিসেস গাঙ্গুলি বলছিলেন এভাবেই পুলিশ আর বিচারব্যবস্থার জেরার সামনে পড়ে দ্বিতীয়বার নেহার মতো শিশুদের হেনস্থা হতে হচ্ছে৻

শিশুদের ধর্ষণ বা তাদের ওপরে যৌন নিগ্রহের ঘটনার তদন্ত করার ক্ষেত্রে পুলিশ আর বিচারব্যবস্থার অনেক বেশী সংবেদনশীল হওয়া দরকার বলে মনে করছে আন্তর্জাতিক সংগঠনটি৻ তারা বলছে, সব স্তরেই সচেতনতার অভাব রয়েছে৻

দিল্লি পুলিশের মহিলা ও শিশু রক্ষা দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত ডেপুটি কমিশনার সুমন নালওয়াও স্বীকার করছিলেন সেটা৻

সুমন নালওয়ার কথায়, “আমরা তো চেষ্টা করছি এধরণের ঘটনাগুলির তদন্তের সময়ে পুলিশ যাতে অনেক বেশী সতর্ক থাকে – আরও সংবেদনশীল হয়৻ সচেতনতা বাড়ানোর জন্য অনেক প্রকল্পও নেওয়া হয়েছে৻ কিন্তু সেগুলো যে খুব একটা কাজে আসছে না, সেটা আমি নিজেও বুঝতে পারছি৻”

শিশুদের ওপরে যৌন নিগ্রহ রোখার জন্য খুব কড়া আইন রয়েছে, কিন্তু বেশীরভাগ রাজ্যই সেইসব আইন প্রয়োগই করছে না৻ যে প্রকল্পের অধীনে যৌন নিগ্রহ রোধে কড়া আইন প্রণয়ন করার কথা, সেই সুসংহত শিশু বিকাশ প্রকল্পের টাকা অনেক রাজ্যই ফেরত দিয়ে দিচ্ছে৻

পরিস্থিতির ভয়াবহতার কথা স্বীকার করলেও কীভাবে শিশুদের যৌন নিগ্রহের হাত থেকে রক্ষা করা যায় – তার উপায় খুঁজে পাচ্ছে না সরকার৻

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻