BBC navigation

জামায়াতের গঠনতন্ত্রে বড় ধরণের পরিবর্তন

সর্বশেষ আপডেট বুধবার, 5 ডিসেম্বর, 2012 16:04 GMT 22:04 বাংলাদেশ সময়
jamaat_e_islami

বাংলাদেশের ইসলামপন্থী রাজনৈতিক দল জামায়াতে ইসলামী তাদের গঠনতন্ত্রে পরিবর্তন এনে 'ইসলামী রাষ্ট্রব্যবস্থা'-র পরিবর্তে 'গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা'সম্বলিত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠাকে তাদের লক্ষ্য হিসেবে উল্লেখ করেছে।

নির্বাচন কমিশনে রাজনৈতিক দল নিবন্ধনের শর্ত পূরণের জন্যই দলটির গঠনতন্ত্রে মৌলিক কিছু বিষয়ে বড় ধরণের এসব পরিবর্তন বা সংশোধনী আনা হয়েছে।

অবশ্য দলের নেতারা বলছেন, এসব পরিবর্তন তাদের দলে মৌলিক আদর্শ-উদ্দেশ্যের সাথে সাংঘর্ষিক নয়।

জামায়াত তাদের এই সংশোধিত গঠনতন্ত্র নির্বাচন কমিশনে জমাও দিয়েছে।

জামায়াতে ইসলামী যদিও বাংলাদেশে নির্বাচন ও গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক পদ্ধতিতে অংশ নিয়ে আসছে, কিন্তু এতদিন তাদের গঠনতন্ত্রে 'আল্লাহ-প্রদত্ত ও রসুল-প্রদর্শিত ইসলাম কয়েমের প্রচেষ্টা'-র কথাকেই তাদের মূল উদ্দেশ্য হিসেবে উল্লেখ করা ছিল।

"একটা শব্দের জন্য যদি একটা বিষয় নিয়ে বিতর্ক এড়ানো যায় বা সবার কাছে গ্রহণযোগ্য হয়, তাহলে আমরা সেটা করবো না কেন?"

জসিমউদ্দিন সরকার, জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতা

কিন্তু এখন তা বাদ দিয়ে 'গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে ন্যায় ও ইনসাফভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা এবং মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন করা'-র কথা বলা হয়েছে।

জামায়াতের একজন কেন্দ্রীয় নেতা জসিমউদ্দিন সরকার বলেছেন, গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ অনুযায়ী নির্বাচন কমিশনের দেয়া নিবন্ধনের শর্ত পূরণ করতেই এ সংশোধনীগুলো আনা হয়েছে।

'আরপিওর সাথে কিছু কিছু বিধিবিধানের সামঞ্জস্য বিধানকল্পে আমরা এই সংশোধনীগুলো এনেছি। বিভিন্ন স্তরে সব কমিটি নির্বাচিত হতে হবে, মহিলা আসনের ক্ষেত্রে ৩৩ শতাংশ চিহ্নিত করতে হবে, এগুলো আমরা করেছি।

মি. সরকার বলেন, 'আল্লাহ ব্যতীত কাউকেই স্বয়ংসম্পূর্ণ বিধানদাতা বা আইনপ্রণেতা বলে মেনে নেয়া হবে না' এ কথাটি পরিবর্তিত হয়ে এখন যা দাঁড়িয়েছে তা হলো : 'আল্লাহ ব্যতীত অপর কাহাকেও বাদশাহ, রাজাধিরাজ ও সার্বভৌম ক্ষমতার মালিক মানিয়া লইবে না। কাহাকেও নিজস্বভাবে আদেশ ও নিষেধ করিবার অধিকারী মনে করিবে না।'

মি সরকার এ পরিবর্তনের পক্ষে যুক্তি দিয়ে বলেন, 'একটা শব্দের জন্য যদি একটা বিষয় নিয়ে বিতর্ক এড়ানো যায় বা সবার কাছে গ্রহণযোগ্য হয়, তাহলে আমরা সেটা করবো না কেন?'

নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা বলছেন, বাংলাদেশের সংবিধান ও গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে গণতান্ত্রিক ও অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্রকাঠামো সম্পর্কে যা বলা আছে তার সাথে জামায়াতের এতদিনের গঠনতন্ত্র সাংঘর্ষিক ছিল।

নির্বাচন কমিশনার জাবেদ আলী বলছেন, তারা এখন জামায়াতের সংশোধিত গঠনতন্ত্র পরীক্ষা করে দেখবেন।

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻