BBC navigation

বাঘ মারার আসামির মৃত্যু বাঘের থাবাতেই

সর্বশেষ আপডেট বৃহষ্পতিবার, 29 নভেম্বর, 2012 11:22 GMT 17:22 বাংলাদেশ সময়
royal_bengal_tiger

সুন্দরবনের রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার (ফাইল ছবি)

বাংলাদেশের সুন্দরবনে বাঘ পিটিয়ে মারার জন্য যার বিরুদ্ধে মামলা চলছে, এমন এক ব্যক্তি নিজেই এদিন ভোরে সাতক্ষীরা রেঞ্জে বাঘের হামলায় মারা গেছেন।

নিহত ওই ব্যক্তি পেশায় ছিলেন মৎস্যজীবী, তাঁর নাম সাত্তার কারবারি। আটত্রিশ বছর বয়সী সাত্তার কারবারি শ্যামনগরের গোলাখালি গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন।

গত বছরের মার্চ মাসে সুন্দরবনের গভীর জঙ্গল থেকে গোলাখালি গ্রামে ঢুকে পড়েছিল একটি রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার – কিন্তু গ্রামবাসীরা সেই বাঘটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলেন।

এরপর বন বিভাগের পক্ষ থেকে গ্রামবাসীদের বিরুদ্ধে বাঘ পিটিয়ে মারার জন্য যে মামলা করা হয়, তাতে অন্যতম অভিযুক্ত হিসেবে সাত্তার কারবারিরও নাম ছিল।

কিন্তু সেই বাঘ হত্যার আসামি সাত্তার কারবারি নিজেই এদিন বাঘের হামলার শিকার হয়ে প্রাণ হারালেন। আজ সকালে তিনি যখন মামুদা নদীর ধারে নৌচাখালিতে কাঁকড়া ধরতে গিয়েছিলেন তখনই তার ওপর বাঘের হামলা হয়।

"নিহত ব্যক্তি বৈধ অনুমতি ছাড়াই জঙ্গলের ভেতরে ঢুকেছিলেন, ফলে এ ক্ষেত্রে তাঁর পরিবার সরকার থেকে ক্ষতিপূরণ পাবেন না"

জহিরুদ্দিন আহমেদ, বন বিভাগের কর্মকর্তা

সাত্তারের সঙ্গে তাঁর দুজন আত্মীয়ও নৌকাতে ছিলেন – তারা বাঘটিকে কোনওক্রমে তাড়াতে সক্ষম হলেও তার আগেই সাত্তার কারবারি বাঘের থাবায় গুরুতর আহত হন, তাঁর দেহ থেকে সাঙ্ঘাতিক রক্তক্ষরণ হতে থাকে।

তড়িঘড়ি করে আহত সাত্তারকে শ্যামনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হলেও তাঁকে প্রাণে বাঁচানোর চেষ্টা সফল হয়নি – আজ সকাল দশটা নাগাদ সেখানেই তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়।

বন বিভাগের সুন্দরবন(পশ্চিম) বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা জহিরুদ্দিন আহমেদ বিবিসিকে জানান, বাঘের হামলায় সাত্তার কারবারির মুখমন্ডল এতটাই বিকৃত হয়ে গিয়েছিল যে তাকে প্রায় চেনাই যাচ্ছিল না।

বন বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সাত্তার কারবারি ও তাঁর সঙ্গীরা কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের হাতে আক্রান্ত হলেও তাদের কাঁকড়া ধরতে যাওয়ার কোনও বৈধ অনুমতিই ছিল না।

sunderbans

সুন্দরবনের গভীরে এই ম্যানগ্রোভ অরণ্যই বাঘের প্রিয় আস্তানা

বন বিভাগের বৈধ পাশ ছাড়া সুন্দরবনের ভেতরে গিয়ে বাঘের হামলার শিকার হয়েছেন - এই কারণে নিহত সাত্তার কারবারির পরিবার সরকারি ক্ষতিপূরণও পাবে না বলে জানানো হয়েছে।

ওদিকে ২০১১ সালে গোলাখালি গ্রামে বাঘ পিটিয়ে হত্যা করার ঘটনায় সাত্তার কারবারি-সহ অন্য গ্রামবাসীদের বিরুদ্ধে যে মামলা চলছে, তার এখনও নিষ্পত্তি হয়নি বলেই জানা গেছে।

পরিবেশবাদীরা বহু দিন ধরেই বলে আসছেন, সুন্দরবনের গভীর জঙ্গলের ভেতর খাবারে টান পড়ছে বলেই রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার প্রায়শই বনসংলগ্ন লোকালয়ে হামলা চালাচ্ছে এবং গ্রামবাসীদের সঙ্গে তাদের সংঘাতের ঘটনা ঘটছে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻