BBC navigation

গাজা উপত্যকায় অস্ত্র-বিরতি চুক্তি কার্যকর

সর্বশেষ আপডেট বৃহষ্পতিবার, 22 নভেম্বর, 2012 20:45 GMT 02:45 বাংলাদেশ সময়

কায়রোতে অস্ত্র-বিরতির খবর জানাচ্ছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারী ক্লিনটন ও মিশরীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ কামাল আমর।

অবশেষে একটি অস্ত্র-বিরতি চুক্তি কার্যকর হবার মধ্যে দিয়ে শেষ হলো গাজা উপত্যকায় আট দিন ধরে চলা সহিংসতার।

মধ্যরাতের কিছু পরে ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যেকার এই শান্তিচুক্তি কার্যকর হয়।

কায়রোতে মিশরীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ চুক্তি কার্যকর হবার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

মিশর এই চুক্তির জামিনদার হিসেবে কাজ করছে।

চুক্তির শর্ত অনুযায়ী দু'পক্ষই সব ধরণের লক্ষবস্তুতে হামলা ও হত্যাকাণ্ড বন্ধ করবে।

এমন এক সময়ে এ অস্ত্র-বিরতি কার্যকর হলো যখন আটদিন ধরে চলা সহিংস হামলায় দুপক্ষেরই দেড় শতাধিক প্রাণহানি ঘটেছে।

কায়রোতে মিশরীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ কামাল আমর যখন অস্ত্র-বিরতি কার্যকর হবার খবর নিশ্চিত করেন তখন তার পাশে ছিলেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন।

এরপরেই ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনজামিন নেতানিয়াহু সাংবাদিকদের বলেন, তিনি অস্ত্র-বিরতির সুযোগ নিতে প্রস্তুত।

বিবিসির সঙ্গে আলাপকালে ইসরায়েল সরকারের মুখপাত্র মার্ক রেগেভ বলছিলেন, চুক্তিটি এ অঞ্চলের জন্য একটি ইতিবাচক অগ্রযাত্রা।

মিস্টার রেগেভ এখানে বলছিলেন, 'এটা এসেছে মিশরীয়দের তরফ থেকে, যেটাকে সমর্থন দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এখন আমরা যদি আবার যুদ্ধে ফেরত যাই তাহলে নিজেদেরকে রক্ষা করার প্রস্তুতি নিয়েই তা করতে হবে।'

গাজায় হামলার ফলে সৃষ্ট অগ্নিকাণ্ড। আগুন নেভানোর চেষ্টা।

তবে অস্ত্র-বিরতির শর্ত ভঙ্গ করা হলে সেটা করতেও ইসরায়েল প্রস্তুত বলে হুঁশিয়ারি দেন মার্ক রেগেভ।

এদিকে অস্ত্র-বিরতির শর্তগুলো বর্ণনা করছিলেন হামাসের একজন মুখপাত্র মুসা আবু মারজুক।


মিস্টার মারজুক বলছিলেন, 'চুক্তিটির চারটি জরুরী শর্ত আছে। প্রথমত দুপক্ষই সব ধরণের সহিংসতা বন্ধ করবে। মানুষ হত্যা বন্ধ করা হবে। সীমান্ত দিয়ে পারাপার বাধামুক্ত হবে এবং বিনা বাধায় মানুষ ও পণ্য পরিবহণ নিশ্চিত করা হবে।'

অস্ত্র-বিরতি কার্যকর হবার আগে, গাজায় সহিংসতার অষ্টম দিনেও দুপক্ষে হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।

তেলআবিবে একটি বাসে বোমা হামলায় একুশ জন আহত হয়েছে।

গাজা উপত্যকায় এদিন মারা গেছে তেরো জন ফিলিস্তিনি।

সেখানে শতাধিক লক্ষবস্তুতে এদিন হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল।

একই ধরনের খবর

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻