BBC navigation

ভোটের আগে রংপুর জাপায় ভাঙন

সর্বশেষ আপডেট রবিবার, 11 নভেম্বর, 2012 16:54 GMT 22:54 বাংলাদেশ সময়
রংপুরে তৃণমূল জাতীয় পার্টির আত্মপ্রকাশ

রংপুরে তৃণমূল জাতীয় পার্টির আত্মপ্রকাশ

বাংলাদেশে জাতীয় পার্টির প্রধান ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত রংপুর জেলায় দলটির প্রায় ১০০০ নেতাকর্মী রোববার গণ পদত্যাগ করেছেন। তারা তৃণমূল জাতীয় পার্টি নামে নতুন একটি দলও গঠন করেছেন।

২০শে ডিসেম্বর রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র হিসেবে জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থীর প্রতি দলের চেয়ারম্যানের সমর্থনের প্রতিবাদে এই গণ পদত্যাগ হলো।

রোববার দুপুরে পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি হিসেবে রংপুরের সদরের টাউন হলে সমবেত হন স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

পদত্যাগকারীদের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে সদরে ২২ টি ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরা তাদের সমর্থন দিচ্ছেন।

পদত্যাগকারীদের অন্যতম রংপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুস্তাফিজার রহমান বলেন, “দলের চেয়ারম্যান কাউকে মনোনয়ন দেবেন না বলেছিলেন কিন্তু পরে তিনি তার মত পরিবর্তন করে একজন প্রেসিডিয়াম সদস্যকে মনোনয়ন দেন। স্থানীয় পর্যায়ে কর্মীদের সাথে যার কোন যোগাযোগ নেই। তাই মনোনীত প্রার্থীর ব্যাপারে মাঠ পর্যায়ের কর্মীরা একমত পোষণ করতে পারে নি। তাই এরকম সিদ্ধান্ত”।

রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পরপরই মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিযোগিতার আঁচ টের পাওয়া যাচ্ছিল।

এর আগে গত ৬ই নভেম্বর জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মশিউর রহমান রাঙার রংপুর সিটি কর্পোরেশন মেয়র প্রার্থী হিসেবে দলের চেয়ারম্যানের সমর্থন প্রত্যাহারের দাবিতে এক সংবাদ সম্মেলন করা হয়। শনিবার ছিল তাদের বেঁধে দেয়া আল্টিমেটামের শেষ দিন।

হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ, চেয়ারম্যান, জাতীয় পার্টি

হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ, চেয়ারম্যান, জাতীয় পার্টি

এদিকে মেয়র পদে মনোনয়ন প্রাপ্ত প্রার্থী মশিউর রহমান রাঙা বলেন, “নতুন দল গঠনকারীরা বস্তুত দলের শুভাকাঙ্ক্ষী মাত্র। আমাকে মনোনয়নের সিদ্ধান্ত দলের চেয়ারম্যানের। তবে তারপরও আমি বলব আমিও দীর্ঘদিন সংসদ সদস্য থাকার পর মনোনয়ন পাইনি। কিন্তু আমিতো নতুন দল গঠন করিনি। নতুন দল গঠনের সিদ্ধান্ত ভুল”।

বাংলাদেশ নবম জাতীয় সংসদের তৃতীয় প্রধান দল জাতীয় পার্টির শক্ত ঘাঁটি রংপুর। দলের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সাবেক সামরিক শাসক হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের জন্মভূমি হিসেবে জাতীয় পার্টি দীর্ঘদিন যাবত রংপুরে তাদের সমর্থন ধরে রেখেছে।

এখন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এক বছর বাকি থাকতে মাট পর্যায়ের নেতা কর্মীদের এই বিবাদ কি ধরনের বার্তা দেয়? উত্তর বংগের প্রধান দৈনিক করতোয়ার সম্পাদক মোজাম্মেল হক এই পদত্যাগের ঘটনাকে জাতীয় পার্টির জন্য শুভ নয় বলে উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, “মাঠ পর্যায়ের নেতা কর্মীরা দলের জন্য অনেক পরিশ্রম করেন। তারাই জনগণের কাছে যান। তারা দলকে সংগঠিত করে রাখেন।''

''এতে অবশ্যই দলের ক্ষতিসাধন হবে বিশেষ করে উত্তরবঙ্গে রংপুর জাতীয় পার্টির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ, সেখানকার কর্মীরাও অনেক শক্তিশালী। তাদের সমর্থন হারালে সংসদ নির্বাচনে দলটির ক্ষতি হবে কেননা সামনে মাত্র এক বছর পরে নির্বাচনে এবং এরশাদ এককভাবে নির্বাচন করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন”।

চলতি মাসের ১৮ তারিখ রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন।

ইতিমধ্যেই মনোনয়ন বঞ্চিতরা আলাদাভাবে তাদের প্রচারণা শুরু করেছেন বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻