BBC navigation

ক্ষমা চাওয়ার দাবি এড়িয়ে গেলেন হিনা রাব্বানী

সর্বশেষ আপডেট শুক্রবার, 9 নভেম্বর, 2012 10:38 GMT 16:38 বাংলাদেশ সময়

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী হিনা রাব্বানী খার শুক্রবার বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় বলেছেন, ১৯৭১ সালের ঘটনাবলীকে পেছনে ফেলে দুই দেশের উচিৎ সামনে এগিয়ে যাওয়া। বাংলাদেশের কর্মকর্তারা জানান, ১৯৭১ সালের যুদ্ধে গণহত্যার জন্য ক্ষমা প্রার্থনার জন্য বাংলাদেশের দাবির জবাবে পাকিস্তানী পররাষ্ট্র মন্ত্রী এই মন্তব্য করেন।

মূলত আঞ্চলিক জোট ডি-এইট এর এক শীর্ষ সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য হিনা রাব্বানী খার ঢাকায় যান। বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রী দিপু মনির সঙ্গে আনুষ্ঠানিক বৈঠকের সময় ক্ষমা প্রার্থনার বিষয়টি তোলা হয়।

বৈঠকের পর বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব মিজারুল কায়েস সাংবাদিকদের জানান, পররাষ্ট্র মন্ত্রী দিপু মনির সঙ্গে পাকিস্তানী পররাষ্ট্র মন্ত্রী হিনা রাব্বানী খারের বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক নানা বিষয় নিয়েই আলোচনা হয়েছে। এই আলোচনায় বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রী ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় সংঘটিত গণহত্যা এবং মানবতা বিরোধী অপরাধের জন্য পাকিস্তানের প্রতি ক্ষমা প্রার্থনার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, জবাবে পাকিস্তানী পররাষ্ট্র মন্ত্রী বলেছেন অতীতকে পেছনে রেখে দুদেশের উচিৎ সামনে এগিয়ে যাওয়া।

উল্লেখ্য বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে এই ক্ষমা প্রার্থনার বিষয়টিকে খুবই স্পর্শকাতর ইস্যু বলে বিবেচনা করা হয়। এর আগে এই ইস্যুতে বাংলাদেশের সঙ্গে পাকিস্তানের কূটনৈতিক সম্পর্কে বিভিন্ন সময় টানাপোড়েন সৃষ্টি হয়েছে।

১৯৭১ সালের যুদ্ধে প্রায় তিরিশ লক্ষ মানুষ নিহত হন বলে বাংলাদেশ দাবি করে থাকে। কিন্তু ২০০০ সালে ঢাকায় এক পাকিস্তানী কূটনীতিক এই সংখ্যার সঙ্গে দ্বিমত প্রকাশ করে বলেন যে ঐ যুদ্ধে মাত্র ২৬ হাজার মানুষ নিহত হন।

পাকিস্তানী কূটনীতিক ইরফান-উর-রাজার ঐ মন্তব্য নিয়ে সেসময় দুদেশের সম্পর্কের মারাত্মক অবনতি ঘটে। বাংলাদেশ সরকার এই কূ্টনীতিককে ঢাকা থেকে বহিস্কার করে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻