BBC navigation

রোহিঙ্গা ইস্যুতে পক্ষ নিতে সুচির অস্বীকৃতি

সর্বশেষ আপডেট শনিবার, 3 নভেম্বর, 2012 10:47 GMT 16:47 বাংলাদেশ সময়

বার্মার বিরোধী নেত্রী আং সান সুচি রোহিঙ্গা মুসলিমদের ইস্যুতে কোন সুস্পষ্ট অবস্থান নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন।

তিনি বার্মার পশ্চিমাঞ্চলে জাতিগত সহিংসতা পরিহার করে সহনশীলতার পরিচয় দেয়ার আহ্বান জানান।

বিবিসির সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যার মূলে কি রয়েছে তা দেখার আগে রোহিঙ্গাদের অধিকারকে সমর্থন জানিয়ে তিনি তার নৈতিক নেতৃত্বের অপব্যবহার করতে চান না। তিনি বলেন, এই সংঘাতে দুপক্ষই ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে, তবে এই বিতর্কে তিনি কোন পক্ষ নিতে চান না।

উল্লেখ্য নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ী বার্মার এই নেত্রী রোহিঙ্গা ইস্যুতে এপর্যন্ত যেরকম নীরব থেকেছেন তা অনেককে বিস্মিত করেছে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে তিনি এ নিয়ে সমালোচিত হচ্ছেন।

বার্মার রাখাইন প্রদেশে রোহিঙ্গা মুসলিমদের সঙ্গে বৌদ্ধদের সংঘাত চলছে বহু বছর ধরে। সেখানে সর্বশেষ দফা জাতিগত সংঘাতে এ পর্যন্ত অন্তত ৬০ জন নিহত হয়েছে। হাজার হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম তাদের বাড়ীঘর ছেড়ে পালিয়েছে।

বার্মায় আনুমানিক আট লক্ষ রোহিঙ্গা মুসলিম রয়েছে, যাদেরকে বার্মা তাদের নাগরিক হিসেবে স্বীকৃতি দিতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছে। রাখাইন প্রদেশের বৌদ্ধ জনগোষ্ঠী এই রোহিঙ্গা মুসলিমদের বাংলাদেশ থেকে আসা অবৈধ অভিবাসী বলে বিবেচনা করে। অন্যদিকে বাংলাদেশও বার্মা থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের তাদের দেশে ঢুকতে বাধা দিচ্ছে।

এদিকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রধান জোসে ম্যানুয়েল বারোসো বার্মা সফরে গিয়ে আং সান সুচির সঙ্গে বৈঠকে রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে তাঁর উদ্বেগের কথা জানিয়েছেন।

তিনি বার্মার প্রেসিডেন্ট থেইন সিয়েনের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন বার্মায় দশ কোটি ডলারের বেশি উন্নয়ন সাহায্য দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻