BBC navigation

হলমার্ক কেলেঙ্কারি: তানভীর মাহমুদ রিমান্ডে

সর্বশেষ আপডেট সোমবার, 8 অক্টোবর, 2012 14:26 GMT 20:26 বাংলাদেশ সময়
থানা হাজতে তানভীর মাহমুদ

থানা হাজতে তানভীর মাহমুদ

বাংলাদেশে রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী ব্যাংক থেকে জালিয়াতির মাধ্যমে ২৫০০ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার ঘটনায় অন্যতম অভিযুক্ত হলমার্ক গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর মাহমুদ এবং প্রতিষ্ঠানটির আরেকজন কর্মকর্তার ২৪ দিনের রিমান্ড বা জিজ্ঞাসাবাদের আবেদন মঞ্জুর করেছে ঢাকার একটি আদালত।

দেশটির দুর্নীতি দমন কমিশন অভিযুক্ত দুজনকে নিজেদের হেফাজতে রেখে এই জিজ্ঞাসাবাদ করবে বলে জানাচ্ছে।

হলমার্ক গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর মাহমুদ ও মহাব্যবস্থাপক তুষার আহমেদকে রবিবার রাতে গ্রেপ্তারের পর সোমবার দুপুরে দুর্নীতি দমন কমিশনে নিয়ে যাওয়া হয়।

এর আগে ঢাকার পল্লবী থানায় মি. মাহমুদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে একটি মামলা করে র‍্যাব।

অভিযোগে বলা হয়েছে, গ্রেপ্তারের সময় তার কাছে আগ্নেয়াস্ত্র পাওয়া গেছে।

এদিকে দুপুরে বেশ কিছুক্ষণ জিজ্ঞাসাবাদ শেষে দুর্নীতি দমন কমিশনের তদন্ত কর্মকর্তারা জানাচ্ছেন, তারা মি. মাহমুদের কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছেন। যদিও তদন্তের খাতিরে তা এখনই প্রকাশ করতে রাজি হয়নি সংস্থাটি।

বিকেলে অভিযুক্ত মি. মাহমুদ এবং মি. আহমেদকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে কমিশনের দায়ের করা ১১টি মামলার মধ্যে তিনটি মামলায় ১০ দিন করে ৩০ দিনের রিমান্ড আবেদন জানানো হয়।

কমিশনের কৌঁসুলি মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, আদালত দু'জনের জন্য আট দিন করে চব্বিশ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে।

এখন অভিযুক্তদের নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করবে দুর্নীতি দমন কমিশন।

কমিশনের উপপরিচালক এবং আলোচিত হলমার্ক কেলেঙ্কারির ঘটনার একজন তদন্ত কর্মকর্তা মীর জয়নাল আবেদীন শিবলী জানান, সংস্থাটি আপাতত অভিযুক্তদের রমনা থানা হাজতে রাখবে। সেখান থেকে প্রয়োজনমত কমিশন কার্যালয়ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

পরে যদি কমিশন মনে করে তাহলে তাদের নিজস্ব কার্যালয়েও অভিযুক্তদের আটক রাখবার ব্যবস্থা হতে পারে।

সন্ধ্যায় আদালত থেকে অভিযুক্তদের নিয়ে সরাসরি রমনা থানায় নিয়ে গিয়ে সেখানকার জেল-হাজতে রাখবার কথা রয়েছে বলে জানান মি. আবেদীন।

কমিশনের এই ২৪ দিনের রিমান্ড ছাড়াও তানভীর মাহমুদের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া অস্ত্র আইনের মামলাটিতেও পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

ক'মাস আগে হলমার্ক গ্রুপকে নিয়ম ভেঙে হাজার হাজার কোটি টাকা ঋণ দেবার খবরটি ফাঁস হবার পর বাংলাদেশে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করে দেশটির দুর্নীতি দমন কমিশন গত বৃহস্পতিবার হলমার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মি. মাহমুদসহ প্রতিষ্ঠানটির বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা এবং সোনালী ব্যাংকের একাধিক শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা মিলিয়ে ২৭ জনের বিরুদ্ধে ১১টি মামলা দায়ের করে।

একই ধরনের খবর

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻