BBC navigation

রামুতে শান্তি ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ

সর্বশেষ আপডেট বুধবার, 3 অক্টোবর, 2012 11:42 GMT 17:42 বাংলাদেশ সময়

শনিবার রাতের হামলায় বেশ কয়েকটি বৌদ্ধ মন্দির ভাঙচুর করা হয়

বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় কক্সবাজার জেলার রামু উপজেলায় বৌদ্ধ মন্দির ও ঘরবাড়িতে হামলার চারদিন পর আজ সেখানে স্থানীয় মুসলিম, বৌদ্ধ ও হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতা ও প্রতিনিধিদের নিয়ে একটি শান্তি ও সম্প্রীতি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সম্মেলনে এই তিনটি ধর্মীয় সম্প্রদায়ের প্রায় আড়াইশোর মতো প্রতিনিধি অংশ নিয়েছেন যাতে সরকারের ধর্মমন্ত্রী শাহজাহান মিয়াসহ স্থানীয় কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৌদ্ধ ধর্মের প্রতিনিধি সুকুমার বড়ুয়া সম্মেলন শেষে বিবিসিকে বলেছেন, বিভিন্ন সম্প্রদায়ের লোকেরা এই এলাকায় বহু বছর ধরে শান্তিতে বসবাস করে আসছেন এবং আগামীতেও তারা একসাথেই থাকবেন।

‘এই ঘটনা আমাদের মধ্যে কোন বিভেদ সৃষ্টি করতে পারবে না।‘ বলেন মি. বড়ুয়া।

অন্যদিকে, মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি শোয়েব সাঈদ বলেছেন, ‘এই হামলার মধ্য দিয়ে যে অনাস্থা সৃষ্টি হয়েছে শুধুমাত্র এই সম্মেলনের মাধ্যমে সেটা ফিরিয়ে আনা সম্ভব নয়। এজন্যে তৃনমূল পর্যায়ে আরো অনেক কিছু করার আছে।‘

এদিকে, রামুসহ চট্টগ্রামের অন্যান্য জায়গায় বৌদ্ধ মন্দিরে ও বাড়িঘরে হামলার সময় প্রশাসন কেন নিরাপত্তা দিতে পারেনি সরকারের কাছে তার কারণ জানতে চেয়েছে হাইকোর্ট।

রামুতে প্রশাসনের নিষ্ক্রিয় ভূমিকাকে চ্যালেঞ্জ করে করা এক রিটের শুনানি শেষে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ তার কারণ জানতে চেয়েছে।

আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এই রুলের জবাব চেয়েছে আদালত।

একইসাথে আদালত সব ধর্মের উপাসনালয়ে নিরাপত্তা নিশ্চিত করারও নির্দেশ দিয়েছে।

রামুর উপজেলায় বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের মানুষের ঘরবাড়ি এবং তাদের মন্দিরে হামলা, ভাঙচুর এবং আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছিল গত শনিবার রাতে।

এর পর তা দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছিল কক্সবাজার সদর, উখিয়া এবং টেকনাফ উপজেলায়।

ফেসবুকে কোরান শরিফ অবমাননার অভিযোগে বৌদ্ধ মন্দিরে এবং ঘরবাড়িতে হামলার এসব ঘটনায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে স্থানীয় প্রশাসন বলছে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻