BBC navigation

ঢাকায় বিএনপি অফিস অবরুদ্ধ

সর্বশেষ আপডেট বুধবার, 3 অক্টোবর, 2012 16:25 GMT 22:25 বাংলাদেশ সময়

ঢাকায় বিএনপি অফিস ঘিরে রেখেছে পুলিশ

বাংলাদেশে প্রধান বিরোধী দল বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে গাড়ি পোড়ানোর অভিযোগে যুবদল নেতা মোয়াজ্জেম হোসেন আলালসহ ২৫জনকে আটকের পর প্রত্যেককে দু’দিন করে রিমান্ডে পাঠানো হয়েছে।

বিএনপি অভিযোগ করেছে, তাদের কার্যালয়কে ঘিরে পুলিশ,গোয়েন্দা পুলিশ অবস্থান নিয়ে আছে। ফলে কার্যালয়ের ভেতরে থাকা নেতাকর্মীদের মধ্যে গ্রেফতার আতংক কাজ করছে।

গ্রেফতার এবং পুলিশের এই তৎপরতার প্রতিবাদে বিএনপি ৮ই অক্টোবর বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

গতকাল দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে যুবদলও ছাত্রদলের মিছিলের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ এবং সহিংস ঘটনা ঘটে।

ঢাকার নয়া পল্টন এলাকায় বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় পুলিশ অবরুদ্ধ করে রেখেছে বলে দলটি অভিযোগ তুলেছে।

মঙ্গলবার বিকেলে সেখানে যুবদল এবং ছাত্রদলের মিছিলের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছিল। যানবাহন ভাঙচুর, গাড়িতে আগুন দেওয়া এবং বোমা বিস্ফোরণ – এ ধরণের সহিংস ঘটনাও ঘটেছিল।

সেই থেকে বিএনপির অফিসের ভেতরে যেসব নেতা-কর্মী আটকা পড়েছিলেন তাদের কয়েকজন বলছিলেন, ‘সারারাত গ্রেফতার আতংকে কেটেছে। পুলিশ আমাদের কার্যালয় থেকে বের হতে দেয়নি। কার্যালয়ের চারপাশে শুধু পুলিশ আর পুলিশ ছিল।

"আমরা অহিংস কর্মসূচি দিয়ে গণতান্ত্রিক পথে আন্দোলন করছি। সরকার আমাদেরকে নিয়ে যেতে চাইছে সংঘাতে পথে"

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব, বিএনপি

সারাক্ষণই মনে হয়েছে যে পুলিশ কার্যালয়ের ভিতরে ঢুকে গ্রেফতার করবে কিনা।’

বিএনপির কার্যালয় অবরুদ্ধ করে রাখার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন পুলিশ কর্মকর্তা গোলাম সারোয়ার।

তিনি বলেছেন, কিছু সহিংস ঘটনা ঘটে যাওয়ার কারণে আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশ বিএনপি কার্যালয় থেকে কিছুটা দূরত্বে অবস্থান নিয়েছে।

বিএনপির নেতারা বলেছেন, সকাল থেকে তাদের কার্যালয়ের মূল গেইট ছেড়ে দিয়েছে। কিন্তু সাদা পোশাকে পুলিশ এবং গোয়েন্দা পুলিশ ওৎ পেতে থাকে।

কার্যালয় থেকে কেউ বেরুলেই তাকে আটক করে।

যুবদল সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বুধবার দুপুরে বিএনপি কার্যালয় থেকে বের হলে কিছুটা দূরত্বেই তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে বাধা দিয়ে সরকারই উস্কানি দিচ্ছে এবং সংঘাতের রাজনীতির দিকে ঠেলে দিতে চাইছে।

অফিস থেকে বের হওয়ার সাথে সাথে বিএনপি নেতা মোয়াজ্জেম হোসেন আলালকে গ্রেফতার করে পুলিশ

অফিস থেকে বের হওয়ার সাথে সাথে যুবদল নেতা মোয়াজ্জেম হোসেন আলালকে গ্রেফতার করে পুলিশ

তিনি বলেছেন, ‘আমরা অহিংস কর্মসূচি দিয়ে গণতান্ত্রিক পথে আন্দোলন করছি। সরকার আমাদেরকে নিয়ে যেতে চাইছে সংঘাতে পথে।’

মঙ্গলবারের ঘটনায় গাড়ি পোড়ানো, পুলিশের কাজে বাধা দেয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগে ৪৯ জনের নাম দিয়ে এবং ৩শ জনের মতো অজ্ঞাতনামার কথা উল্লেখ করে পুলিশ দু’টি মামলা করেছে।

সেই মামলায় যুবদল নেতা মোয়াজ্জেম হোসেন আলালসহ ২৫ জনকে আটক করে তাদের প্রত্যেককে দু’দিন করে পুলিশি রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।

বিএনপির মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মীদের অনেকেই মনে করেন, সরকার এখন কঠোর মনোভাব নিয়ে এগুচ্ছে। এর জবাবে তাদের শক্ত কর্মসূচি দেয়া উচিৎ।

বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অবশ্য বলেছেন, সরকারের কঠোর আচরণের কারণে হয়তো তাদেরকেও কঠোর কর্মসূচি দিতে হতে পারে।

কিন্তু এখন সভা, সমাবেশ গণসংযোগের যে কর্মসূচি নিয়ে তারা এগুচ্ছেন, মানুষকে সম্পৃক্ত করার এ ধরনের কর্মসূচি বেশি কার্যকর প্রভাব ফেলছে বলে তারা বিশ্বাস করেন।

বিএনপির নেতারা এটাও মনে করেন যে, এ মাসে ঈদের আগে কঠোর কর্মসূচি দেওয়ার সুযোগ কম।

ঈদের পরে তারা নতুন করে পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে কৌশল ঠিক করবেন।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻