BBC navigation

বুয়েটের উপ-উপাচার্যকে প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত

সর্বশেষ আপডেট মঙ্গলবার, 4 সেপ্টেম্বর, 2012 00:08 GMT 06:08 বাংলাদেশ সময়

বুয়েটে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

বাংলাদেশে প্রযুক্তি ও প্রকৌশল বিষয়ক শিক্ষার সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ হিসেবে খ্যাত বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় বা বুয়েটের উপ-উপাচার্য হাবিবুর রহমানেরকে প্রত্যাহার করে নেবার ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সরকার।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বিবিসি বাংলার সঙ্গে আলাপে জানিয়েছেন, বুয়েটে চলমান ছাত্র-শিক্ষক আন্দোলন নিরসনে প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক সমিতির সাথে সোমবার গভীর রাত পর্যন্ত বৈঠকের পর সরকারের তরফ থেকে উপ-উপাচার্যকে সরিয়ে নেবার এ সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সেই সাথে আন্দোলনকারী ছাত্র-শিক্ষকদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাগুলোও প্রত্যাহার করার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

এর বিনিময়ে শিক্ষকেরা অচিরেই ক্লাসে ফিরে যাবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন।

বুয়েটের উপাচার্য নজরুল ইসলাম এবং উপ-উপাচার্য হাবিবুর রহমানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে তাঁদের পদত্যাগের দাবিতে বেশ কয়েক মাস ধরেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে অচলাবস্থা বিরাজ করছে।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় বা বুয়েট।

সম্প্রতি এ আন্দোলনে নতুন মোড় নিলে আন্দোলনকারীদের সাথে সোমবার দফায় দফায় বৈঠক করেন মিস্টার নাহিদ।

সবশেষ বৈঠকটি শুরু হয় রাত এগারোটায়।

দুঘন্টার এ বৈঠক শেষে বেরিয়ে এসে শিক্ষামন্ত্রী বিবিসি বাংলাকে বলেন, ছাত্র-শিক্ষকদের দাবি, শিক্ষার্থীদের স্বার্থ এবং দেশবাসীর উদ্বেগ ইত্যাদি বিষয়গুলোকে বিবেচনায় নিয়ে এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

বৈঠকটিতে আন্দোলনরত শিক্ষক সমিতির নেতারা ছাড়াও শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের সচিব এবং বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যানও উপস্থিত ছিলেন।

তবে উপাচার্যকে প্রত্যাহারের যে দাবিটি রয়েছে সেটি নিয়ে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানান মিস্টার নাহিদ।

এদিকে শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তারা শিক্ষামন্ত্রীর আশ্বাসে আশ্বস্ত হয়ে অচিরেই ক্লাসে ফিরে যাবার উদ্যোগ নেবেন।

একই ধরনের খবর

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻