BBC navigation

লন্ডনে আইনের লড়াইয়ে রোমান অ্যাব্রামোভিচের জয়

সর্বশেষ আপডেট শুক্রবার, 31 অগাষ্ট, 2012 13:07 GMT 19:07 বাংলাদেশ সময়
Roman Abramovich

চেলসি ফুটবল ক্লাবের মালিক রোমান অ্যাব্রামোভিচ

রুশ কোটিপতি বরিস বেরেজভ্‌স্কি চেলসি ফুটবল ক্লাবের মালিক রোমান অ্যাব্রামোভিচের সঙ্গে আইনের লড়াইয়ে হেরে গেছেন।

রোমান অ্যাব্রামোভিচের বিরুদ্ধে ব্ল্যাকমেলের অভিযোগে আনা বিশাল অংকের ক্ষতিপূরণের মামলায় লন্ডনের আদালত মিঃ বেরেজভ্‌স্কির বিরুদ্ধে রায় দিয়েছে।

বিশ্বের অন্যতম এক ধনকুবের রোমান অ্যাব্রামোভিচ এবং ১২ বছর আগে লন্ডনে পালিয়ে আসার আগে রাশিয়ার অন্যতম সবচেয়ে শক্তিধর কোটিপতি বরিস বেরেজভ্‌স্কির মধ্যে এই আইনের লড়াইয়ের নিস্পত্তি কীভাবে হয় তা নিয়ে সংবাদমাধ্যমে ছিল ব্যাপক আগ্রহ।

৬৫ বছরের মিঃ বেরজভ্‌স্কি অভিযোগ করেন ৪৫ বছরের মিঃ অ্যাব্রামোভিচ যিনি মিঃ বেরেজভ্‌স্কির বক্তব্য অনুযায়ী তার ব্যবসায়িক অংশীদার ছিলেন, তিনি তাঁর আস্থা এবং চুক্তির শর্ত ভঙ্গ করেছেন ।

মিঃ বেরজভ্‌স্কি আরো বলেন রুশ তেল কোম্পানি সিবনেফ্টের শেয়ার আসল দামের চেয়ে অনেক কম মূল্যে তাঁকে বিক্রি করতে বাধ্য করেছিলেন মিঃ অ্যাব্রামোভিচ, যার ফলে তিনি লক্ষ লক্ষ ডলার ক্ষতির মুখে পড়েন।

মিঃ বেরজভ্‌স্কি মিঃ অ্যাব্রামোভিচের কাছে তিনশ কোটি পাউন্ডের বেশি ক্ষতিপূরণ দাবি করেছিলেন।

মিঃ অ্যাব্রামোভিচের বিরুদ্ধে তিনি রুশ একটি অ্যালুমিনিয়াম কোম্পানি নিয়ে একটি চুক্তি ভঙ্গেরও অভিযোগ আনেন ।

মিঃ অ্যাব্রামোভিচ বলেন তাঁর ভাষায় মিঃ বেরেজভ্‌স্কিকে ‘রাজনৈতিক গডফাদার’ হিসাবে কাজ করার জন্য লক্ষ লক্ষ পাউন্ড দেওয়া হয়েছে এবং তিনি কখনওই তাঁর ব্যবসায়িক অংশীদার ছিলেন না।

লন্ডনের এক আদালতে বিচারক মিসেস জাস্টিস গ্লস্টার মিঃ বেরেজভ্‌স্কির দাবি নাকচ করে দিয়ে বলেন তাঁর তথ্য প্রমাণ ও সাক্ষ্য নির্ভরযোগ্য নয়।

বিচারক বলেছেন মিঃ বেরেজভ্‌স্কির কাছে 'সত্য' একটা 'নমনীয় ভাবনা'।

Boris Berezvosky

বরিস বেরেজভ্‌স্কি

মিঃ বেরেজভস্কি বলেছেন বিচারের রায়ে তিনি বিস্মিত।

"আমি বলতে পারতাম ইংল্যান্ডের আদালত খারাপ, কিন্তু তার থেকে উত্তম কিছু নেই। কিন্তু একথাও যে সত্য তা নিয়ে আমার যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে।"

বরিস বেরেজভ্‌স্কি, রুশ ধনকুবের

''চার্চিল বলেছিলেন গণতন্ত্র খারাপ, কিন্তু তার থেকে উত্তম কিছু নেই। আমি বলতে পারতাম ইংল্যান্ডের আদালত খারাপ, কিন্তু তার থেকে উত্তম কিছু নেই। কিন্তু একথাও যে সত্য তা নিয়ে আমার যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে।'' আদালতের রায়ের পর একথা বলেন বরিস বেরেজভ্‌স্কি।

রুশ রাজনীতির 'ক্রীড়নক'

এই মামলা ১৯৯০-এর দশকের রুশ ইতিহাসের একটা গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়কে তুলে এনেছে।

ওই সময়ে বিশাল অঙ্কের রাষ্ট্রীয় সম্পদ একদল রুশ ব্যক্তির কাছে বিক্রি হয়ে যায়, যারা রুশ রাজনীতির 'শক্তিশালী ক্রীড়নক' হয়ে উঠেছিলেন।

দুই ব্যক্তিই আদালতের শুনানিতে নব্বইয়ের দশকে সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর রাশিয়ার উত্তাল বছরগুলোতে তাদের কার্যকলাপের কথা বলেন।

তাঁরা বলেন কীভাবে তাঁরা বিপুল সম্পত্তির অধিকারী হয়ে ওঠেন।

মিঃ বেরেজভ্‌স্কি যে শুধু বিপুল অর্থেরই মালিক হয়েছিলেন তা নয়, ক্রেমলিনে এবং বিশেষ করে বরিস ইয়েলৎসিনের প্রেসিডেন্ট আমলে রাজনৈতিকভাবে তিনি বিশাল ক্ষমতার অধিকারী হয়ে উঠেছিলেন।

প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে মতান্তর ঘটার পর মিঃ বেরেজভ্‌স্কি ২০০০ সালে লন্ডনে পালিয়ে আসেন। এরপর তিনি আর রাশিয়ায় ফিরে যান নি।

দুই ব্যক্তিরই লন্ডনে বাড়ি রয়েছে।

মিঃ অ্যাব্রামোভিচ লন্ডনের অভিজাত এলাকা নাইটস্‌ব্রিজে বিপুল সম্পত্তির মালিক। এছাড়াও লন্ডনের শহরতলিতে পশ্চিম সাসেক্সে তার ৪০০ একর জমির ওপর বিশাল অট্টালিকা রয়েছে।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻