BBC navigation

মাদকের অভিযোগে চীনে তীব্র প্রতিক্রিয়া

সর্বশেষ আপডেট মঙ্গলবার, 31 জুলাই, 2012 12:17 GMT 18:17 বাংলাদেশ সময়

সাঁতারে স্বর্ণপদক জয়ী চীনের বিস্ময় বালিকা ইয়ে শিওয়েন

অলিম্পিক গেমসে তাক লাগিয়ে দেয়া চীনা সাঁতারু ইয়ে শিওয়েনের বিরুদ্ধে বলবর্ধক মাদক ব্যবহারের অভিযোগে চীনে তীব্র প্রতিক্রিয়া হয়েছে।

লন্ডন অলিম্পিকসে চারশো মিটার মেডলেতে স্বর্ণ পদক জয়ী ইয়ে শিওয়েনের বিশ্ব রেকর্ড সম্পর্কে প্রশ্ন তুলেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের একজন নামকরা সাঁতার প্রশিক্ষক।

১৬ বছর বয়সী এই চীনা সাঁতারু যেভাবে রেকর্ড সময়ে চারশো মিটার মেডলিতে তাঁর সাঁতার শেষ করেন, মার্কিন কোচ জন লেনার্ড তাকে ‘অবিশ্বাস্য’ বলে মন্তব্য করেন।

ইয়ে শিওয়েন বলবর্ধক মাদক ব্যবহার করে থাকতে পারেন বলেও তিনি ইঙ্গিত করেন।

ইয়ে শিওয়েন ৪০০ মিটার মেডলেতে নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়েন

কিন্তু এই অভিযোগের বিরুদ্ধে ক্রুদ্ধ প্রতিক্রিয়া হয়েছে চীনে।

সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলোতে অনেকে এই অভিযোগকে ঈর্ষা প্রসূত বলে মন্তব্য করেছেন। অনেকে একে চীনা বিরোধী মনোভাবের বহিপ্রকাশ বলে অভিযোগ করেন।

এদিকে ব্রিটিশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের প্রধান লর্ড কলিন ময়নিহান বলেছেন, ইয়ে শিওয়েন ড্রাগ টেস্টে উত্তীর্ণ হয়েই এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছেন এবং তাকে তার সাফল্যের স্বীকৃতি দেয়া উচিত।

এর আগে ইয়ে শিওয়েন নিজেও মাদক ব্যবহারের কথা অস্বীকার করেন।

চীনা কর্মকর্তারা বলছেন, লন্ডনে আসার পর চীনা অ্যাথলীটদের এপর্যন্ত অন্তত একশটি ড্রাগ টেস্টে অংশ নিতে হয়েছে এবং এখনো পর্যন্ত একজন অ্যাথলীটও এই পরীক্ষায় ‘পজিটিভ’ বলে ধরা পড়েননি।

অন্যান্য খ্যাতিমান সাতাঁরুরাও ইয়ে শিওয়েনকে সমর্থন জানিয়ে বলেছেন, পরাজয়ের বেদনা সইতে না পেরে এবং ঈর্ষাকাতর হয়ে কোন কোন মহল এই অভিযোগ তুলছে।

ইয়ে শিওয়েন তাঁর ৪০০ মিটার মেডলের শেষ পঞ্চাশ মিটারের সাঁতার শেষ করেন রেকর্ড সময়ে, এই দূরত্ব তিনি অতিক্রম করেন পুরুষদের ইভেন্টে স্বর্ণ পদক জয়ী রায়ান লকটির চেয়েও কম সময়ে। এ কারণেই মূলত অনেকে ইয়ে শিওয়েন এর সাফল্য নিয়ে প্রশ্ন তুলতে থাকেন।

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻