BBC navigation

আলেপ্পোতে মরণপণ লড়াইয়ের তোড়জোড়

সর্বশেষ আপডেট শুক্রবার, 27 জুলাই, 2012 11:25 GMT 17:25 বাংলাদেশ সময়
aleppo_syria

তীব্র লড়াইয়ের সম্ভাবনায় উৎকন্ঠিত আলেপ্পো

সিরিয়াতে সরকারপন্থী একটি সংবাদপত্র এই বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে যে আলেপ্পো শহরে এমন তীব্র লড়াই শুরু হতে যাচ্ছে, যেটা হবে সে দেশে সব যুদ্ধের জননী – অর্থাৎ সবচেয়ে সাঙ্ঘাতিক যুদ্ধ।

সিরিয়ার দ্বিতীয় প্রধান নগরী আলেপ্পোতে বিদ্রোহীদের চূর্ণ করার জন্য বিপুল সংখ্যক সেনা ইতিমধ্যেই সেখানে জড়ো হয়েছে, শহর-অভিমুখে এগিয়ে চলছে ট্যাঙ্ক ও সাঁজোয়া গাড়ি।

আকাশপথেও সেনারা আলেপ্পোর ওপর আক্রমণ চালাচ্ছে – যুদ্ধবিমান থেকে বোমাবর্ষণ করা হচ্ছে বিদ্রোহীদের ঘাঁটিগুলোর ওপর।

আলেপ্পোতে ভয়াবহ লড়াইয়ের সম্ভাবনায় জাতিসংঘ যে ভীষণই উদ্বিগ্ন, সে কথা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে তারা। জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক কমিশনার নভি পিল্লে বলেছেন, এই মারাত্মক লড়াইয়ে শহরের বেসামরিক মানুষজন অশেষ দুর্ভোগে পড়বেন, এটা ভেবেই তাঁরা সবচেয়ে বিচলিত।

লড়াইয়ে দুই পক্ষই যাতে বেসামরিক মানুষদের ছাড় দেয়, সে জন্য আর্জি জানিয়েছেন তিনি, কিন্তু সেই আবেদনে আদৌ কতটা কর্ণপাত করা হবে তা নিয়ে সন্দেহ আছে।

জাতিসংঘ ছাড়াও আমেরিকাও আলেপ্পোর পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ ব্যক্ত করেছে; মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তো একধাপ এগিয়ে মন্তব্য করেছে সেখানে গণহত্যা চালানোর প্রস্তুতি চলছে।

aleppo_afp_rebels

আলেপ্পোতে সরকার-বিরোধী বিদ্রোহীরা

পরারাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ভিক্টোরিয়া নুল্যান্ড বলেছেন, ‘আলেপ্পোতে সম্ভবত একটা গণহত্যা ঘটতে দেখা যাবে – কারণ সরকার সে রকমই প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে মনে হচ্ছে।’

বিদ্রোহীরা এদিকে দাবি করছে, শহরের অন্তত অর্ধেকটা তাদের দখলে – কিন্তু আলেপ্পোকে পুরোপুরি বিদ্রোহীমুক্ত করার জন্যই সেনাবাহিনী এখন তোড়জোড় চালাচ্ছে।

এদিকে শহর ছেড়ে এখন অনেকেই পালাচ্ছেন – যার মধ্যে সিরিয়ার আইনসভায় আলেপ্পো প্রদেশের প্রতিনিধি ইখলাস আল বাদাউই-ও আছেন।

তিনি সীমান্ত পেরিয়ে তুরস্কে আশ্রয় নিয়েছেন, এবং এই প্রথম সিরিয়ার আইনসভার কোনও সদস্য পক্ষত্যাগ করলেন।

একই ধরনের খবর

সম্পর্কিত বিষয়

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻