মুবারকের অবস্থা আশংকাজনক

মিশর থেকে পাওয়া খবরে জানা যাচ্ছে দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারকের শারীরিক অবস্থা আশংকাজনক।

মিশরের কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে বলা হচ্ছে মি মুবারক ‘ক্লিনিক্যালই ডেড’ এবং তাকে কৃত্রিম ভাবে বাঁচিয়ে রাখতে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

mubarak

জুনের শুরুর দিকে হোসনি মুবারককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়।

৮৪ বছর বয়সী মি মুবারক স্ট্রোকে আক্রান্ত হলে তাকে জেল থেকে সরিয়ে হাসপাতালে কৃত্রিম ব্যবস্থায় বাঁচিয়ে রাখা হয়েছে।

মি মুবারক গত বছর ব্যাপক আন্দোলনের মুখে প্রেসিডেন্ট পদ ছাড়তে বাধ্য হন। ওই আন্দোলনের ঘটনার সময় তার কারণে প্রতিবাদকারীদের মৃত্যু হয়েছে এই অভিযোগে এ মাসের শুরুর দিকে তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়।

এর পর থেকে তার অসুস্থতা সংক্রান্ত বেশ কিছু খবর এলেও এর অনেকগুলোই পরে ভুল প্রমাণিত হয়।

এই খবর এমন একটি সময়ে এসেছে যখন হাজার হাজার মানুষ মুসলিম ব্রাদারহুডের ডাকে আবারো কায়রোর বিখ্যাত তাহারীর স্কয়ারে সমবেত হয়েছে।

মিশরের মানুষ যখন সম্প্রতি হয়ে যাওয়া নির্বাচনের ফলাফলের অপেক্ষায় ঠিক তখনই ক্ষমতাসীন সামরিক কাউন্সিল সংসদ ভেঙ্গে দিয়েছে এবং এখন সার্বিক ক্ষমতা নিজের হাতে নেয়ার চেষ্টা করছে। আর এর প্রতিবাদেই এই সমাবেশ।

প্রতিবাদকারীরা বিষয়টিকে একধরনের ‘সামরিক অভ্যুত্থান’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

তাহারীর স্কয়ার থেকে বিবিসি সংবাদ-দাতারা জানাচ্ছেন, মানুষ প্রতিবাদের সাথে সাথে মি মুবারকের অবস্থারও দিকেও খেয়াল রাখছেন।

মিশরের সদ্য শেষ হওয়া নির্বাচনের সরকারী ফল এখনো ঘোষণা করা হয়নি। তবে এরই মধ্যে মুসলিম ব্রাদারহুড তাদের প্রার্থী মুহাম্মদ মুরসি জিতেছে বলে দাবী জানিয়েছে।

অন্যদিকে তার প্রতিপক্ষ হুসনি মোবারকের সময়কার প্রধানমন্ত্রী আহমেদ শফিকও নির্বাচনে নিজের জয় দাবী করেছেন।

আশা করা হচ্ছে বৃহস্পতিবার নির্বাচনের ফল ঘোষণা করা হবে।

অনেকেই আশংকা করছেন, নির্বাচনের ফল ঘোষণার আগ মুহূর্তে সাবেক এই প্রেসিডেন্টের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত খবর দিয়ে কোন কিছু আড়াল করার চেষ্টা করাও হতে পারে।

সর্বশেষ সংবাদ

অডিও খবর

ছবিতে সংবাদ

বিশেষ আয়োজন

BBC navigation

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻