ফেসবুকের পেজ বন্ধে আদালতের নির্দেশ

bangladesh high court

ফেসবুকের ৫টি পেজ বন্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশের আদালত

বিভিন্ন ধর্মের অনুসারীদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগের প্রেক্ষিতে সামজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট ফেসবুকের পাঁচটি গ্রুপের পেজ এবং আরেকটি আলাদা ওয়েবসাইট বন্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশের উচ্চ আদালত।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষকসহ দুই ব্যক্তির এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট আজ (বুধবার) এই নির্দেশ জারি করে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক বাটুল সরওয়ার ও ঢাকা সেন্টার ফর ল' অ্যান্ড ইকোনমিকসের অধ্যক্ষ নুরুল ইসলাম বুধবার যে রিট আবেদনটি করেন তাতে তাদের পক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার মুহাম্মদ নওশাদ বিবিসিকে বলেছেন ফেসবুকের পাঁচটি গ্রুপের পেজ এবং আরেকটি আলাদা ওয়েবসাইটে মুসলিম, হিন্দু, খ্রিস্টান ও বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত আনে এমন কার্টুন ও অন্যান্য উপকরণ রয়েছে যা ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে।

এই সব ফেইসবুক পেইজ এবং ওয়েবসাইটে ইসলামের নবী হজরত মুহাম্মদ ও ইসলাম সহ খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের যীশু খ্রীষ্ট, বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের গৌতম বুদ্ধ, হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বিভিন্ন দেব-দেবী সম্পর্কে কটূক্তি করা হয়েছে।

তবে, ফেসবুক পেজ ও ওয়েবসাইটের ঠিকানা প্রকাশ করতে তিনি রাজি হননি। তিনি বলেন, ‘আমরা চাইনা, ঐ ওয়েব ঠিকানাগুলোতে গিয়ে কেউ মন্তব্যগুলো দেখুক।‘

facebook

সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগ এসেছে।

মি. নওশাদ বলেন, ঐ ওয়েব ঠিকানাগুলো থেকে মানুষের ধর্মীয় অনুভূতিতে যে আঘাত হানা হয়েছে, তা বাংলাদেশের সংবিধানের পরিপন্থী।

বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার ও বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের বেঞ্চ কারণ দর্শানোর নির্দেশে ওই সব গ্রুপ বা পেজ স্থায়ীভাবে বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়েছেন।

স্বরাষ্ট্র সচিব, তথ্য সচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক, র‍্যাবের মহাপরিচালক ও টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনকে (বিটিআরসি) তিন সপ্তাহের মধ্যে জবাব দিতে আদালত নির্দেশ দিয়েছেন।

আদালত একইসঙ্গে এইসব পেজ ও ওয়েবসাইট সংশ্লিষ্টদের চিহ্নিত করতে তদন্ত শুরুর নির্দেশও দিয়েছে।

একইসঙ্গে এসব কন্টেন্ট বা আধেয় আপলোড করার ব্যাপারে যারা জড়িত বা এসব ওয়েবসাইট যারা চালান তাদের বিরুদ্ধে কেন যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে না তাও জানতে চেয়েছেন আদালত।

সর্বশেষ সংবাদ

অডিও খবর

ছবিতে সংবাদ

বিশেষ আয়োজন

BBC navigation

BBC © 2014 বাইরের ইন্টারনেট সাইটের বিষয়বস্তুর জন্য বিবিসি দায়ী নয়

কাসকেডিং স্টাইল শিট (css) ব্যবহার করে এমন একটি ব্রাউজার দিয়ে এই পাতাটি সবচেয়ে ভাল দেখা যাবে৻ আপনার এখনকার ব্রাউজার দিয়ে এই পাতার বিষয়বস্তু আপনি ঠিকই দেখতে পাবেন, তবে সেটা উন্নত মানের হবে না৻ আপনার ব্রাউজারটি আগ্রেড করার কথা বিবেচনা করতে পারেন, কিংবা ব্রাউজারে css চালু কতে পারেন৻