BBC Bangla

মূলপাতা > খবর

সমর্থন তুলল তৃণমূল, ইস্তফা দেবেন মন্ত্রীরা

Facebook Twitter Google+
18 সেপ্টেম্বর 2012 22:40

অমিতাভ ভট্টশালী

সংবাদদাতা, কলকাতা

mamta_bannerjee

ভারতে ক্ষমতাসীন ইউপিএ জোটের অন্যতম প্রধান শরিক তৃণমূল কংগ্রেসের নেত্রী মমতা ব্যানার্জি জানিয়ে দিয়েছেন, সরকারের ওপর থেকে তাঁর দল সমর্থন প্রত্যাহার করে নিচ্ছে।

কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেসের একজন ক্যাবিনেট মন্ত্রী-সহ মোট যে ছজন মন্ত্রী আছেন, তারাও শুক্রবারেই সবাই পদত্যাগ করবেন বলে জানিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী তথা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

তবে ইউপিএ জোটের দ্বিতীয় প্রধান শরিক তৃণমূলের লোকসভায় মোট ১৯জন সংসদ সদস্য আছেন, তারা সমর্থন তুলে নিলেও মনমোহন সিং সরকারের পতনের আশঙ্কা নেই বলেই মনে করা হচ্ছে।

সমাজবাদী পার্টির নেতা মুলায়ম সিং যাদব কিংবা বহুজন সমাজ পার্টির নেত্রী মায়াবতীর সমর্থন পেলেই কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন জোট আপাতত টিঁকে যেতে পারবে, লোকসভায় গরিষ্ঠতার জন্য প্রয়োজনীয় ২৭২জনের সমর্থন জোগাড় করাটাও তাদের জন্য সমস্যা হবে না।

তবে তা সত্ত্বেও তৃণমূলের এই সমর্থন প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন জোটের জন্য একটা বড় ধাক্কা হিসেবেই দেখা হচ্ছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কলকাতায় তৃণমূলের সংসদীয় কমিটির দীর্ঘ তিন ঘন্টা ব্যাপী বৈঠকে সরকারের ওপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করা এবং মন্ত্রীদের প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বৈঠকের পর তৃণমূল নেত্রী জানান, যেভাবে কেন্দ্রীয় সরকার জোটের শরিকদের সঙ্গে কোনও পরামর্শ না-করে ডিজেলের দাম বাড়িয়েছে, রান্নার গ্যাসে ভর্তুকি কমিয়েছে এবং খুচরো পণ্যের বাজার বহুজাতিকদের জন্য উন্মুক্ত করে দিয়েছে, তাতে তাদের বাধ্য হয়েই এই ‘দুর্ভাগ্যজনক’ সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে।

তৃণমূল কংগ্রেস আরও বলছে, যেভাবে কেন্দ্রীয় সরকার তাদের সঙ্গে আলোচনা না করেই একের পর এক তাদের ভাষায় ‘জনবিরোধী’ সিদ্ধান্ত নিয়ে চলেছে, তা জোট সরকার চালানোর পদ্ধতি হতে পারে না৻

কেন্দ্রীয় সরকারকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করে মিস ব্যানার্জি বলেন, ‘তারা ইচ্ছেমতো দেশটাকে বিক্রি করে দেবে – এটা আমরা কিছুতেই মেনে নিতে পারব না!’

তবে তৃণমূল নেত্রীর কথা থেকে একটা ক্ষীণ আপসের সম্ভাবনাও দেখা গেছে, তিনি জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় সরকার এখনও যদি তাদের দাবিগুলো মেনে নেয়, তাহলে তারা সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে রাজি আছেন।

এই দাবিগুলো হল, ভারতে খুচরো পণ্যের বাজারে বিদেশি সংস্থাগুলোর প্রবেশ ঠেকাতে হবে, ডিজেলের বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহার করতে হবে আর রান্নার গ্যাসের গ্রাহকদের বছরে যে ছটি সিলিন্ডার ভর্তুকিতে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে সেটাকে বাড়িয়ে অন্তত বারো করতে হবে।

বর্তমানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় রেলমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন তৃণমূলের মুকুল রায়, এছাড়াও অন্যান্য মন্ত্রণালয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের আরও পাঁচজন প্রতিমন্ত্রী আছেন।

আগামী দুতিনদিনের মধ্যে কোনও রফাসূত্র না-বেরোলে এই মন্ত্রীরা সবাই শুক্রবারেই প্রধানমন্ত্রীর কাছে তাদের পদত্যাগপত্র জমা দেবেন বলে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

বুকমার্ক করুন

Email Facebook Google+ Twitter
রিফ্রেশ